আবেদন

জন্ম নিবন্ধন ই পেমেন্ট করার নিয়ম

অনলাইনে মোবাইল ব্যাংকিং MFS – MOBILE FINANCIAL SERVICES এর সহযোগিতায়, অনলাইন ব্যাংকিং ব্যবস্থায়, নির্ধারিত জন্ম নিবন্ধন অনলাইন পেমেন্ট করতে পারবেন। e payment bdris এর সম্পূর্ণ পদ্ধতি জেনে নেই।

জন্ম নিবন্ধন টাকা পেমেন্ট কিভাবে করবেন?

জন্ম নিবন্ধন টাকা পেমেন্ট করার জন্য প্রথমে eservices.bdris.gov.bd ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে “ই-পেমেন্ট” অপশনে প্রবেশ করুন। তারপরে আবেদনের প্রকৃতি ও আইডি, জন্ম তারিখ প্রদান করুন।

অটোমেটেড চালান সিস্টেম থেকে বিকাশ, নগদ অথবা উপায় ব্যবহার করে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন পেমেন্ট করতে পারবেন। এছাড়াও এখান থেকে সরাসরি ব্যাংকের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন এর টাকা পরিশোধ করতে পারবেন। জন্ম নিবন্ধন ই পেমেন্ট সম্পর্কে নিজের ছবিসহ বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

জন্ম নিবন্ধন ই পেমেন্ট করার পদ্ধতি – bdris payment

জন্ম নিবন্ধন এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন ই পেমেন্ট করা যাবে। নিচে ধাপ অনুসারে সম্পূর্ণ পদ্ধতি দেখানো হলো।

ধাপ ১ঃ জন্ম নিবন্ধন E-Service ওয়েব সাইটে প্রবেশ

প্রথমে https://eservices.bdris.gov.bd/ এই ওয়েবসাইটটিতে ভিজিট করুন। তারপরে এখান থেকে “ই পেমেন্ট” অপশনে প্রবেশ করুন।

জন্ম নিবন্ধন টাকা পেমেন্ট । জন্ম নিবন্ধন ই পেমেন্ট

ধাপ ২ঃ পেমেন্ট এর ধরন নির্বাচন করুন

এই পেজ থেকে প্রথমে আবেদনের প্রকৃতি নির্বাচন করতে হবে। যদি আপনারা নুতন জন্ম নিবন্ধন সনদ আবেদনের ফি পরিশোধ করতে চান তাহলে “জন্ম নিবন্ধন আবেদন” সিলেক্ট করুন। এবং যদি জন্ম নিবন্ধন সনদের তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন করেন তাহলে “জন্ম তথ্য সংশোধনের আবেদন” সিলেক্ট করুন।

জন্ম নিবন্ধন টাকা পেমেন্ট । জন্ম নিবন্ধন ই পেমেন্ট ২

তারপরে “আবেদনের আইডি” বক্সে জন্ম নিবন্ধন সনদ সংশোধন ও নতুন জন্ম নিবন্ধন সনদের জন্য আবেদন করার পরে পাওয়া আইডি নাম্বারটি বসিয়ে দিন। এরপরে জন্ম নিবন্ধনের দেওয়া তারিখ অনুযায়ী জন্ম তারিখ (DD MM YYYY) ফরমেটে সিলেক্ট করুন। সবশেষে নিচের ক্যাপচারটি পূরণ করে “Search” বাটনে ক্লিক করুন।

ধাপ ৩ঃ ব্যক্তিগত তথ্য সনাক্ত করুন

এরপরে নিচের অংশে আবেদনের তথ্যাদি দেখতে পাবেন। তথা আবেদনের সময় দেওয়া আবেদনকারীর নাম, আবেদনকারীর পিতা ও মাতার নাম, আবেদনের তারিখ, ফি এর পরিমাণ, মোবাইল নাম্বার এবং জন্ম নিবন্ধন কার্যালয়ের নাম দেখতে পাবেন।

জন্ম নিবন্ধন টাকা পেমেন্ট । জন্ম নিবন্ধন ই পেমেন্ট ৩

সবকিছু ঠিক থাকলে “NEXT” বাটনে ক্লিক করুন। তথ্যের সঠিকতা যাচাই করার জন্য পুনরায় দেখানো হবে। সবকিছুই ঠিক থাকলে “Confirm” বাটনে ক্লিক করুন।

জন্ম নিবন্ধন টাকা পেমেন্ট । জন্ম নিবন্ধন ই পেমেন্ট ৪

ধাপ ৪ঃ ই পেমেন্ট MFS নির্বাচন

এই স্টেপে আপনাকে অটোমেটেড চালান সিস্টেমের পেইজে নিয়ে আসা হবে। এখানে বাংলাদেশের অনেকগুলো ব্যাংক দেয়া থাকবে। আপনারা চাইলে যে কোন ব্যাংকের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন এর টাকা পেমেন্ট করতে পারেন।

জন্ম নিবন্ধন টাকা পেমেন্ট । জন্ম নিবন্ধন ই পেমেন্ট ৫

বিকাশ, নগদ ও উপায়ের মাধ্যমে টাকা পেমেন্ট করার জন্য “সোনালী ব্যাংক লিমিটেড” বাছাই করে “save & continue” বাটনে ক্লিক করুন।

ধাপ ৫ঃ পেমেন্ট সম্পন্ন করুন

তারপরে আপনাদের সামনে সোনালী ই-পেমেন্ট গেটওয়ে ওপেন হবে। এখান থেকে “Mobile banking” অপশনে এসে, আপনার পছন্দের পেমেন্ট গেটওয়ে সিলেক্ট করুন। এখান থেকে আপনারা বিকাশ, নগদ, উপায়, ট্যাপ, ওকে ওয়ালেটের মাধ্যমে ই-পেমেন্ট করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন টাকা পেমেন্ট । জন্ম নিবন্ধন ই পেমেন্ট ৬

আমি এখান থেকে বিকাশ সিলেক্ট করলাম। তারপরে আপনাদের সামনে Pop-Up আকারে ফি এর সকল তথ্যাদি দেখাবে। এখান থেকে Confirm করে দিন। পরবর্তীতে pay with Bkash বাটনে ক্লিক করে আপনার বিকাশ একাউন্ট নাম্বার ও পাসওয়ার্ড প্রদানের মাধ্যমে পেমেন্ট সম্পন্ন করুন।

** সার্ভার জটিলতা এড়াতে আপনি ইনভয়েস নাম্বার, যেটা চালান নম্বর হিসেবে দেখা যায় এটি সংরক্ষণ করে রাখুন। কেননা সার্ভার জটিলতায় অনেক সময় চালানের কপি সরাসরি ডাউনলোড করা যায় না। আর চালানের কপি ছাড়া জন্ম নিবন্ধনের আবেদন কখনো গ্রহণ করবে না রেজিস্টার কার্যালয়। পেমেন্ট হয়ে যাওয়ার পরে আপনাকে অপশন দেওয়া হবে চালানের কপি ডাউনলোড করার জন্য। আপনি আগে চালান নম্বরটি কপি করে মোবাইলের সংগ্রহ করে নিবেন। এতে করে পরবর্তীতে অনলাইন ভেরিফিকেশন ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন এ চালানের অনলাইন কপি। ** 

অন্যান্য MFS গুলো ব্যবহার করে একই পদ্ধতিতে জন্ম নিবন্ধন টাকা পেমেন্ট করতে পারবেন। বর্তমানে আপনারা খুব সহজেই ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে উক্ত পদ্ধতি অবলম্বন করে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি ও নূতন জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফি পরিশোধ করতে পারেন।

ই পেমেন্টের সুবিধা

২০২৩ সালের মার্চ মাসে bdris e payment তথা জন্ম নিবন্ধন টাকা ই পেমেন্টের মাধ্যমে জমা দেওয়ার সিস্টেম চালু হয়। ই- পেমেন্ট সিস্টেম চালু হওয়ার ফলে খুব সহজেই ঘরে বসে মূল্যবান সময় অপচয় না করে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে টাকা পরিশোধ করতে পারি।

পূর্বে অনেক ইউপি সচিবের জন্ম নিবন্ধন এর টাকা পেমেন্ট নিয়ে দুর্নীতির রেকর্ড হয়েছে। যেখানে কিছু দুষ্ট ইউপি সচিবরা নাগরিকদের কাছ থেকে বেশি টাকা ফি নিতো। তবে বর্তমানে অনলাইনের মাধ্যমে ই পেমেন্ট সুবিধা চালু হওয়ায়, এই ধরনের কোন দুর্নীতির সুযোগ নেই।

সম্মানিত পাঠকবৃন্দ আশা করি bdris e payment সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। ই-পেমেন্টের ক্ষেত্রে কোন অসুবিধা হলে অবশ্যই কমেন্ট এর মাধ্যমে আমাদের জানাতে পারেন।

7 Comments

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button