মৃত্যু নিবন্ধন

অনলাইনে মৃত্যু নিবন্ধন আবেদন ফরম পূরণ করার নিয়ম

জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইন ২০০৪ অনুসারে প্রত্যেক নাগরিকের জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন বাধ্যতামূলক। বর্তমানে জন্ম নিবন্ধন এর মত মৃত্যু নিবন্ধন সনদ অনলাইন ভিত্তিক হয়ায় যে কেউ মৃত্যু সনদ আবেদন ফরম অরিজিনাল কিনা সেটি অনলাইনে মৃত্যু সনদ যাচাই করার মাধ্যমে সত্যায়িত করতে পারবে। মৃত্যু নিবন্ধন সনদ জন্ম নিবন্ধন সনদের মতই খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ডকুমেন্ট।

পরিবারের কারো মৃত্যু ঘটলো বিলম্ব না করে অবশ্যই তার মৃত্যু নিবন্ধন আবেদন করে মৃত্যু সনদ সংগ্রহ করে রাখতে হবে। মৃত ব্যক্তির ওয়ারিশ হিসেবে সম্পত্তি হস্তান্তর বা মালিকানা দাবি এবং বিভিন্ন সরকারি ক্ষেত্রে মৃত ব্যক্তির মৃত্যু সনদ প্রয়োজন হয়। নতুন মৃত্যু নিবন্ধন আবেদন শুরু করার আগে চলুন জেনে নেই মৃত্যু নিবন্ধন করতে কি কি কাগজপত্র প্রয়োজন।

নতুন মৃত্যু নিবন্ধন করতে কি কি লাগে

অনলাইনে মৃত্যু সনদ আবেদন করার জন্য মৃত ব্যক্তির অবশ্যই জন্ম নিবন্ধন অনলাইন হতে পারে হাতের লেখা জন্ম নিবন্ধন দিয়ে অনলাইনে মৃত্যু নিবন্ধন আবেদন করা সম্ভব নয়। মৃত্যু নিবন্ধন অনলাইন ফরম এর মাধ্যমে করার জন্য যে সকল ডকুমেন্ট প্রয়োজন তা নিচে দেওয়া হলঃ-

1.অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ

2.মৃত্যুর তারিখ ও স্থান সম্পর্কিত প্রমাণপত্র

হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করার ক্ষেত্রে ডাক্তার বা স্বাস্থ্যকর্মীর প্রত্যয়নপত্র মৃত্যুর প্রমাণপত্র হিসেবে গৃহীত হয়। আর যদি সাধারণভাবে বাসাবাড়িতে মৃত্যুবরণ করে সে ক্ষেত্রে নিচে উল্লিখিত ডকুমেন্টের যেকোনোটি প্রযোজ্য হবে।

  • জানাযা সম্পাদনকারী ইমাম কর্তৃক প্রত্যয়ন পত্র
  • সৎকার সম্পূর্ণ কারি কর্তৃক প্রত্যয়ন
  • ময়নাতদন্ত রিপোর্ট
  • স্থানীয় সরকার প্রতিনিধি কর্তৃক মৃত্যুবরণ
  • সমাধি বা সৎকারস্থলের কেয়ারটেকার কর্তৃক প্রদত্ত দাফন বা সৎকার রসিদের অনুলিপি

3.মৃত্যু স্থান এর ঠিকানা

4.মৃত ব্যক্তির বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা

5.মৃত্যু নিবন্ধন সনদ আবেদিকারীর আইডি কার্ড / জন্ম নিবন্ধন

6.মৃত্যুর তথ্য প্রদানকারীর ব্যক্তির জাতীয় পরিচয়পত্র / জন্ম নিবন্ধন

অনলাইনে মৃত্যু নিবন্ধন আবেদন করার নিয়ম

অনলাইনে নতুন মৃত্যু নিবন্ধন সনদের জন্য  আবেদন করতে ভিজিট করুন bdris.gov.bd/dr/application এবং জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়ে অনুসন্ধান করে নিবন্ধকের কার্যালয় বাছাই করুন। তারপর মৃত্যুর কারণ, মৃত্যু স্থানের ঠিকানা, স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা এবং তথ্য প্রদানকারীর তথ্য দিয়ে আবেদন করুন।

মৃত্যু নিবন্ধন অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করার জন্য চেয়ারম্যান কার্যালয় তথা ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা কিংবা সিটি কর্পোরেশন অথবা ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয় আবেদন করতে হবে। অনলাইনে মৃত্যু নিবন্ধন আবেদন করা হলেও মৃত্যু সনদ গ্রহণ করার জন্য ইউনিয়ন পরিষদ ডিজিটাল সেবা সেন্টারে যোগাযোগ করতে হবে।

নতুন মৃত্যু নিবন্ধন আবেদন করার প্রক্রিয়াটি নিচে কয়েকটি ধাপে দেখানো হলো। প্রতিটি ধাপ মনোযোগ সহকারে সম্পন্ন করলে নিজে নিজে অনলাইনের মাধ্যমে মৃত্যু নিবন্ধন আবেদন ও মৃত্যু সনদ ডাউনলোড করতে সক্ষম হবেন।

Step1. জন্ম নিবন্ধন তথ্য অনুসন্ধান

আবেদন করার প্রথম ধাপেই মৃত ব্যক্তির জন্ম নিবন্ধন নাম্বার এবং জন্মতারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন তথ্য অনুসন্ধান করতে হবে। ব্যক্তির জন্ম নিবন্ধন অনলাইন হয়ে থাকলে অনুসন্ধান করার সাথে সাথে ব্যক্তি সম্পর্কিত কিছু তথ্য নিচের ছবির প্রদর্শিত হবে। তথ্য ঠিক থাকলে নির্বাচন করুন বাটনে ক্লিক করে পরবর্তী ধাপের দিকে অগ্রসর হতে হবে।

Step2. মৃত্যু সনদ সংগ্রহ করার কার্যালয় নির্বাচন

নিবন্ধন কার্যালয় বাছাই করার ক্ষেত্রে মৃত ব্যক্তি যে ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভার বাসিন্দা সেই ঠিকানা বাছাই করতে হবে। সিটি কর্পোরেশন বা পৌরসভা এলাকা হলে কাউন্সিলর কার্যালয় ইউনিয়ন হলে ইউনিয়ন পরিষদ মৃত্যু সনদ সংগ্রহ করার ঠিকানা কিভাবে করতে হবে।

Step3.মৃত্যুর বিবরণ (তারিখ ও কারণ)

এই ধাপে আপনাকে মৃত্যুর তারিখ এবং মৃত্যুর কারণ উল্লেখ করতে হবে। মৃত্যুর কারণ হিসেবে অনেকগুলো কারণ দেয়া রয়েছে সেখান থেকে মৃত ব্যক্তির সাথে যে কারনটি প্রযোজ্য যায় সেটি বাছাই করতে হবে।

এর বাহিরে অপশনাল তথ্য হিসেবে স্বামী অথবা স্ত্রীর জন্ম নিবন্ধন নাম্বার জাতীয় পরিচয় পত্র যুক্ত করা যেতে পারে। স্বামী অথবা স্ত্রীর নাম বাংলা এবং ইংরেজিতে যুক্ত করার অপশন রয়েছে তবে সকল তথ্য অপশনাল না দিলেও চলবে।

Step4. মৃত্যু স্থান ও মৃত্যুর সময় বসবাসের ঠিকানা

মৃত ব্যক্তি যে স্থানে মৃত্যুবরণ করেছিল সেই স্থানের বিবরণ দিতে হবে। মৃত্যুর স্থানের বিবরণ হিসেবে বিভাগ,জেলা, উপজেলা ইউনিয়ন,গ্রামের নাম ও বাসা নাম্বারের তথ্য দিয়ে ফরম ফিলাপ করতে হয়।

মৃত্যুর সময় বসবাসের ঠিকানা স্থলে মৃত ব্যক্তি যদি নিজ বাসায় মৃত্যুবরণ করে সেক্ষেত্রে দুটি ঠিকানায় একই হবে। সেক্ষেত্রে পুনরায় মৃত্যুর সময় পাশের বাসার ঠিকানা পূরণ না করে মৃত্যুর স্থানের ঠিকানা ও মৃত্যুর সময় বসে বসে ঠিকানায় কি একটি চেকবক্স থাকবে সেটি বাছাই করে দিতে হবে। আর যদি ঠিকানা বিনয় তাহলে ভিন্ন ভিন্ন ঠিকানা দিয়ে ফরমটি ফিলাপ করে পরবর্তী ধাপে অগ্রসর হতে হবে।

Step5. আবেদনকারী ও তথ্য প্রদানকারী তথ্য

মৃত্যু নিবন্ধন এর জন্য যে ব্যক্তি আবেদন করছে তার জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর অথবা জন্ম নিবন্ধন নাম্বার প্রয়োজন হবে। জন্ম নিবন্ধনের ক্ষেত্রে অবশ্যই সেটি অনলাইন হতে হবে। এর সাথে একটি সচল মোবাইল নাম্বার এবং অপশনাল হিসেবে ইমেইল এড্রেস যুক্ত করতে পারবে।

আবেদনকারীর ঠিকানা এই ঘরগুলোতে যে ব্যক্তি আবেদন করছে তার চাহিত ঠিকানা বাছাই করতে হবে। এক্ষেত্রে ঠিক আগের মত বিভাগ, জেলা-উপজেলা, ইউনিয়ন পরিষদ, গ্রামের নাম ইত্যাদি তথ্য দিয়ে পূরণ করতে হবে।

এরপর আবেদনকারীর সাথে মৃত ব্যক্তির সম্পর্ক সিলেক্ট করতে হবে। এ ধাপে শেষের দিকে আবেদনকারীর জন্ম নিবন্ধন নাম্বার পুনরায় পরবর্তী বাটনে ক্লিক করতে হবে।

Step6. সম্পূর্ণ আবেদনে তথ্য নিশ্চিত

এতক্ষন যাবৎ মৃত্যু সনদ অনলাইন আবেদন করার যেসকল ধাপগুলো অতিক্রম করা হয়েছে সবগুলো ধাপের তথ্য সঠিক আছে কিনা সেটা যাচাই করার পালা। সম্পন্ন আবেদনের একটি বিবরণী সংক্ষেপে দেখানো হবে।

সবকিছু ঠিক থাকলে সাবমিট বাটনে ক্লিক করে আবেদনটি সম্পন্ন করতে হবে। আর যদি কোথাও কোনো রকম ভুল পরিলক্ষিত হয় তাহলে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করে কাংখিত তথ্য পুনরায় সংশোধন করতে হবে।

Step7. অ্যাপ্লিকেশন আইডি সংগ্রহ ও মৃত্যু সনদ ডাউনলোড

মৃত্যু নিবন্ধন ফরম সাবমিট করার পর নিচের ছবির মত একটি অ্যাপ্লিকেশন আইডি  দেখতে পাবেন। মৃত্যু নিবন্ধন অ্যাপ্লিকেশন আইডি সংগ্রহ করে রাখতে পারেন অথবা এই পেজটি প্রিন্ট করে নিতে পারেন।

মৃত্যু সনদ হাতে পেতে বা ডাউনলোড করতে অ্যাপ্লিকেশন আইডি এবং মৃত্যু সনদ পেতে যে সকল ডকুমেন্ট প্রয়োজন সেগুলো সাথে নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ বা নিবন্ধকের কার্যালয় যোগাযোগ করতে হবে।

মৃত্যু সনদ ফি কত

মৃত ব্যক্তির মৃত্যু ৪৫ দিনের মধ্যে অনলাইনে মৃত্যু নিবন্ধন করলে বিনামূল্যে মৃত্যু সনদ সংগ্রহ করার যাবে। তবে মৃত্যুর ৪৫ দিনের বেশি এবং ৫ বছরের কম এই সময়ের মধ্যে নিবন্ধন করলে সনদ পেতে ২৫ টাকা সরকারি ফি প্রদান করতে হয়। ৫ বছরের বেশির ক্ষেত্রে মৃত্যু সনদ গ্রহণ করতে ৫০ টাকা ফি প্রদান করতে হয়।

মৃত্যু নিবন্ধন ও সনদ সম্পর্কিত কিছু প্রশ্ন-উত্তর

মৃত্যু সনদ কোথায় পাবো?

অনলাইনে মৃত্যু নিবন্ধন আবেদন করার পর মৃত্যু সনদ পাওয়ার জন্য ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়, পৌরসভা কিংবা কাউন্সিলরের আফিসে যোহাযোগ করতে হবে। তা ছাড়া আবেদন করার সময় যে নিবন্ধক কার্যালয় বাছাই করা হয়েছিলো দেখান থেকে মৃত্যু সনদ সংগ্রহ করতে পারবে।

মৃত্যু সনদ কিভাবে করব?

মৃত্যু সনদ করার জন্য মৃত ব্যক্তির জন্ম নিবন্ধন নম্বর, জন্ম তারিখ, মৃত্যুর তারিখ ও স্থান সংক্রান্ত তথ্য, আবেদনকারির তথ্য দিয়ে অনলাইনে মৃত্যু নিবন্ধন আবেদন করতে হবে। মৃত্যু নিবন্ধন আবেদনপত্রের প্রিন্ট কপি ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভা অথবা কাউন্সিলর অফিসে জমা দিতে হবে।

মৃত্যু সনদ কি কাজে লাগ?

মৃত্যু সনদ অনেক ক্ষেত্রে প্রয়োজন পড়ে হয় তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে পিতা মাতার  ওয়ারিশ হিসেবে কোন সম্পত্তির মালিকানা পেতে বা কোনো সম্পত্তির উত্তরাধিকারী দাবি করতে। তাছাড়া লাইফ ইন্সুরেন্স এর মত কিছু ব্যাংকিং ক্ষেত্রে মৃত্যু সনদ প্রয়োজন হয়।

মৃত্যু নিবন্ধন করতে কি কি লাগে?

মৃত্যু নিবন্ধন আবেদন করার ক্ষেত্রে মৃত ব্যক্তির অবশ্যই অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ, মৃত্যুর প্রত্যয়ন পত্র, মৃত্যুর ঠিকানা মৃত্যুর কারণ সহ আরো কিছু ডকুমেন্ট প্রয়োজন। এ সম্পর্কে আরও বিস্তারিত উপরে উল্লেখ করা হয়েছে।

মৃত্যু নিবন্ধন ফি কত টাকা?

মৃত্যু নিবন্ধন ফি  সময়ের উপর নির্ভর করে ভিন্ন ভিন্ন হয়। মৃত্যুর ৪৫ দিনের মধ্যে আবেদন করলে মৃত্যু নিবন্ধন ফি প্রযোজ্য নয়। তবে মৃত্যুর ৪৫ দিন থেকে ৫ বছর পর্যন্ত মৃত্যু নিবন্ধন ফি ২৫ টাকা এবং ৫ বছরের বেশি হলে ফি’র পরিমাণ ৫০ টাকা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button